সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১
সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১
Ajker Dainik

প্রোটিয়াদের বিপক্ষে সোমবার মাঠে নামছে টাইগাররা

আজকের দৈনিক | আব্দুর রউফ 

প্রকাশিত: জুন ৯, ২০২৪, ০৮:৩৫ পিএম

প্রোটিয়াদের বিপক্ষে সোমবার মাঠে নামছে টাইগাররা

ডালাসে শ্রীলংকাকে হারিয়ে বিশ্বকাপে শুভসূচনা করে বেশ ফুরফুরে মেজাজে আছেন টাইগাররা। তাই নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে সুপার এইটের আশা জোরালো করতে চায় তারা। সোমবার (১০ জুন) দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলতে নামবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। নিউইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলংকার বিপক্ষে ২ উইকেটে রোমাঞ্চকর জয়ের স্বাদ পায় বাংলাদেশ। জয় নিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করতে পারলেও, টাইগার শিবিরে রয়েছে ব্যাটিং নিয়ে উদ্বেগ। গ্রæপ পর্বে এরই মধ্যে শ্রীলংকা ও নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে জয় পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু মন্থর উইকেটের কারনে দুই ম্যাচেই জয় পেতে বেগ পেতে হয়েছে প্রোটিয়াদের। ইতোমধ্যেই নিউইয়র্কের উইকেট নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হয়েছে। উইকেটের উন্নতিতে সর্বাত্মক চেষ্টা করছে আইসিসি। তবে উইকেট মন্থর হলে সেখান থেকে বেশি সুবিধা পাবে বাংলাদেশই।

টি-২০তে এখন পর্যন্ত প্রোটিয়াদের বিপক্ষে আট ম্যাচ খেলে কোন জয় পায়নি বাংলাদেশ। কিন্তু এবার হারের বৃত্ত ভাঙতে আত্মবিশ্বাসী টাইগাররা।
বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আমাদের ম্যাচের আগে নিউইয়র্কে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। তাই উইকেট সম্পর্কে আমরা কিছু ধারণা পাবো। বোলারদের দুর্দান্ত পারফরমেন্সের কারনেই আত্মবিশ্বাস পাচ্ছেন শান্ত। 

ধারাবাহিকভাবে ভালো পারফরমেন্স করছে দলের বোলাররা। কিন্তু ব্যাটিং ব্যর্থতার কারনে বেশিরভাগ সময় ভেস্তে গেছে বোলারদের অর্জন। তবে ব্যাটিং নিয়ে উদ্বেগ থাকলেও আমি খুব বেশি চিন্তিত নন তিনি। শান্ত জানান, উইকেট যেমনই হোক না কেন, আমরা আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারলে যে কোনো দলকে হারাতে পারি বলেই বিশ্বাস করি। তিনি আরও জানান, দলের সবাই ফিট থাকলে শ্রীলংকার বিপক্ষে জয়ী একাদশ নিয়েই মাঠে নামবে বাংলাদেশ। 

আগামীকালের ম্যাচটি বাংলাদেশের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাটিং শক্তিধর দল দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানো বাংলাদেশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জের হয়ে উঠতে পারে। এছাড়া নিউইয়র্কের পিচও ‘ভয়ংকর’। এই মাঠে এখন পর্যন্ত আগে ব্যাট করতে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে শ্রীলংকা ৭৭ রানে অলআউট, ভারতের কাছে আয়ারল্যান্ড ৯৬ রানে অলআউট ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে নেদারল্যান্ডস ৯ উইকেটে ১০৩ রান করতে পেরেছে। কঠিন এই পিচেই কঠিন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে নাজমুল হোসেন শান্তদের জন্য। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নিউইয়র্কে টস জয়ই ম্যাচ জয়। মানে, আগে টস জিতে প্রতিপক্ষকে ব্যাটিং করাতে পারলে জয় প্রায় সুনিশ্চিত।

এদিকে গতকাল রোববার উগান্ডাকে ৩৯ রানে অলআউট করে ১৩৪ রানের রেকর্ড জয় পায় ক্যারিবীয়রা। শুরুতে ব্যাট করে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৩ রান করে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সেই রান তাড়া করতে গিয়ে ১২ ওভারে স্রেফ ৩৯ রানে অলআউট হয়ে যায় উগান্ডা। অন্যদিকে দিনের আরেক খেলায় বারবাডোসে ইংল্যান্ডকে ৩৬ রানে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে বিশ্বকাপে প্রথম দল হিসেবে দুইশ রানের পুঁজি গড়ে অস্ট্রেলিয়া। অ্যাডাম জ্যাম্পা, প্যাট কামিন্সদের দারুণ বোলিংয়ে ইংল্যান্ডকে ১৬৫ রানে থামিয়ে দেয় তারা।

 অজিদের এই জয়ে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হয়। ম্যাচটিতে মোট রান হয়েছে ৩৬৬, কোনো ব্যক্তিগত ফিফটি ছাড়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এক ম্যাচে যা সবচেয়ে বেশি রানের রেকর্ড। আগেরটি ছিল ২০১০ আসরে দক্ষিণ আফ্রিকা ও নিউজিল্যান্ডের (৩২৭)। গতকাল রাতে আরেক খেলা শুরুর আগে থেকেই বৃষ্টির পূর্বাভাস নিয়ে শঙ্কা ছিলো। অবশেষে সেই শঙ্কাই যেন সত্যি হলো। রাত সাড়ে ৮ টায় চিরপ্রতিদ›দ্বী ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামার কথা ছিল পাকিস্তানের। কিন্তু বৃষ্টির কারণে নির্ধারিত সময়ে টস-ই অনুষ্ঠিত হয় নি। 

আ. দৈনিক / একে/এ রউফ

Link copied!