সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১
সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১
Ajker Dainik
প্রথম ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে লজ্জার হার

সিরিজ বাঁচাতে আজ মাঠে নামবে বাংলাদেশ

আজকের দৈনিক | এম মাহীউজ্জামান শাওন

প্রকাশিত: মে ২৩, ২০২৪, ০৯:২১ এএম

সিরিজ বাঁচাতে আজ মাঠে নামবে বাংলাদেশ

ঠিক ৩০ বছর তিন মাস আগে ১৯৯৪ সালে আইসিসি ট্রফিতে মুখোমুখী দেখা হয়েছিল বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের। সেবার অবশ্য টস জিতেই বোলিং এর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল আকরাম খান, ফারুক আহমেদ, মিনহাজুল আবেদীন নান্নু, আমিনুল ইসলাম বুলবুলরা। ১৪৫ রানে থেমেছিল যুক্তরাষ্ট্রের ইনিংস।

যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ১৪৬ রান তাড়ায় ৩৬ রানে ৫ উইকেট ও ৭৩ রানে ৬ উইকেট হারানো বাংলাদেশ শেষ পর্যন্ত জিতেছিল। অপরাজিত ৬৪ রানে ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলে আকরাম খান হয়েছিলেন ম্যাচসেরা। সেই ম্যাচে সর্বোচ্চ দুটি উইকেট শিকার করেছিলেন মিনহাজুল আবেদীন ও এনামুল হক।


এরপর কেটেছে ৩০টি বছর। বাংলাদেশ দেখেছে ক্রিকেট জগতের নানা উত্থান পতন। বদলেছে টিমের নানা রূপ। এতো বছর পর এসেও শক্তিশালী বাংলাদেশের বিপক্ষে গত মঙ্গলবার বর্তমান র‌্যাঙ্কিং এ ১৯ নম্বরে থাকা যুক্তরাষ্ট্র দলটিও গড়ল নতুন ইতিহাস। এদিন টেক্সাসে তিন বল হাতে রেখেই ৫ উইকেটের অবিশ্বাস্য জয় তুলে নেয় অ্যান্ডারসনের দল।

আয়ারল্যান্ডের পর টেস্ট খেলা দ্বিতীয় দল বাংলাদেশকে হারালো যুক্তরাষ্ট্র।


জিম্বাবুয়ে সিরিজের পর যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে টাইগারদের ব্যাটিং ইনিংসে ছিল একই অবস্থা। টপ অর্ডারের নাজেহাল দশা। ওয়ানডে দল থেকে বাদ পড়া অফ ফর্মে থাকা লিটন কুমার দুই দফা জীবন পাওয়ার পরও ১৫ বলে ১৪ রান করে জেসি সিংয়ের বলে সাজঘরে ফেরেন। অপরদিকে এদিন সৌম্য ভালোভাবেই ইনিংস টানার চেষ্টা করলেও ১৪-তেই থামে ওপেনিং এ নামা লিটনের। তবে সৌম্য ও ফিরে যান ২০ রানেই। তখন পাওয়ার প্লেতে বাংলাদেশের রান মাত্র ৩৭। অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যাট থেকে আসে মাত্র ৩ রান।

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাস গড়ার এদিনে এবং বাংলাদেশের ক্রমাগত ব্যাটিং ব্যর্থতার পেছনে উইকেটকে দায় করেছেন নাজমুল। ‘আমি এটাকে ভুলের পুনরাবৃত্তি মনে করি না। আমার মনে হয় আমরা ভালো উইকেটে খেলছি না। জিম্বাবুয়ে সিরিজেও ভালো উইকেটে খেলিনি।' 
সাকিব আল হাসান ৬ রানে বিদায়ের পর মাহমুদউল্লাহ ও তাওহীদ হৃদয় ৬৪ রানের জুটি গড়েন। হৃদয় নিজস্ব অর্ধশতক তুলে নিয়ে ৪৭ বলে করেন ৫৮ রান। জাকের আলী অনিক অপরাজিত ছিলেন ৯ রানে। ২০ ওভারে ১৫৪ রানের টার্গেট দেয়া বাংলাদেশ বোলিং ইনিংসে তেমন কোনো আশায় দেখাতে পারেনি। ১৫ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে যখন যুক্তরাষ্ট্রের রান মাত্র ৯৪। তখন মিডল অর্ডারে যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে খেলা নিউজিল্যান্ডের সাবেক অলরাউন্ডার কোরি অ্যান্ডারসন ও ভারতীয় বংশোদ্ভূত হারমিট সিং এর ২৮ বলে ৬২ রানের জুটিতে নতুন ইতিহাস গড়তে সক্ষম হয় স্বাগতিকরা। 


ঢাকা পর্বে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শেষ দু’ম্যাচে যেখানে দুদিনে মোট ৮ ওভারে ৩৭ রান দিয়ে মুস্তাফিজ নিয়েছিলেন তিন উইকেট। তবে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাচে এদিন চার ওভারে ৪১ রান দিয়ে সর্বোচ্চ দুটি উইকেট নেন মুস্তাফিজুর রহমান। এ ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের অলরাউন্ডার ও সেদিনের ম্যাচ জয়ের নায়ক হারমিত সিং জানান, “বাংলাদেশ মুস্তাফিজকে ভুলভাবে ব্যবহার করেছে। আমরা ভেবেছিলাম মুস্তাফিজকে বাতাসের বিপরীতে বল করানো হবে। ”

অধিনায়ক শান্ত তাকে বলে এনেছেন বাতাসের দিকে। অন্য এন্ড থেকেই ফিজকে করানো হয়েছে। শেষ ওভারে বাতাসের দিকে মাহমুদুউল্লাহ রিয়াদকেকে বোলিং এ আনার ফল বাংলাদেশের এই লজ্জার হার। 
আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে হিউস্টনের প্রেইরী ভিউ ক্রিকেট গ্রাউন্ডে নামবে বাংলাদেশ ও স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র। সিরিজ নিজেদের হাতে ধরে রাখতে বাংলাদেশের রয়েছে আর একটি মাত্র সুযোগ।

আজকের ম্যাচ এবং শেষ ম্যাচে বাংলাদেশকে জিততেই হবে। ক্রিকেটে অজ্ঞাত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আয়োজক দেশ যুক্তরাষ্ট্রকে কি হারাতে পারবে বাংলাদেশ, এমন প্রশ্ন সামনে এসেছে প্রথম ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে লজ্জাজনক হারের কারণে।

 

আ.দৈ/এ রউফ

Link copied!